ই-পেপার  বুধবার ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ১৪ ফাল্গুন ১৪২৬
ই-পেপার  বুধবার ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০

যেসব ভুল করলে যে কোনো মুহূর্তে ডায়রিয়া হতে পারে
প্রকাশ: রোববার, ১৬ জুন, ২০১৯, ১২:০১ পিএম
গ্রীষ্মকাল মানেই বিশেষ কিছু অসুখের আনাগোনা। গরমে ঘেমে নেয়ে একাকার হয়ে যখন তখন ঠান্ডা পানীয়ে চুমুক বা একটু খাওয়া-দাওয়ার এ দিক ও দিক এ সবের হাত ধরেই হানা দেয় নানা অসুখ। এদের মধ্যে অন্যতম ডায়রিয়া। আর একবার এই রোগ হলে একদিনেই শরীর দুর্বল। এমনকি, বাড়াবাড়ি হলে হাসপাতাল পর্যন্ত গড়ায় অসুখ।
মেডিসিন বিশেষজ্ঞদের মতে, শিশুরা এতে তুলনামূলক বেশি আক্রান্ত হয়। তাদের রোগ প্রতিরোধ করার ক্ষমতাও কম থাকে। তবে বড়দের ক্ষেত্রেও সময় মতো চিকিৎসা শুরু না করলে এই অসুখ মারাত্মক আকার নিতে পারে।
চিকিৎসকদের মতে, এই অসুখ এড়ানোর উপায় পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন থাকা। রান্নাঘর থেকে খাওয়ার জায়গা পরিষ্কার রাখুন। বাসনকোসন ধোয়া মাজার জন্য পরিষ্কার জল ব্যবহার করুন। মুখ ধোয়ার সময় ব্যবহার করুন পরিষ্কার ও বিশুদ্ধ পানি। পারলে সেটাও ফিল্টারের পানি হলে ভালো হয়।
ডায়রিয়া রুখতে তো বটেই, তা ছাড়াও সারা বছরই পরিষ্কার পানি খান। রাস্তাঘাটের যে কোনো জায়গা থেকে পানি খাবেন না। মিনারেল ওয়াটার বা ফোটানো জল খান। তবে ডায়রিয়া আক্রান্ত অঞ্চলে বাস করলে আর একটু বেশি সচেতন হতে হবে।
চিকিৎসকদের মতে, ডায়রিয়া আক্রমণ আপনার স্থানীয় এলাকায় হলে নিয়ম করে ট্যাঙ্ক পরিষ্কার করান। পানি ফুটিয়ে তাতে জিওলিন ফেলে খান। ফিল্টার করা পানিতেও জিওলিন ফেলে খেতে পারেন।
রাস্তার খাবার যতটা পারেন এড়িয়ে চলুন। বিশেষ করে, ফুচকা, ঘুগনি, মোমো জাতীয় খাবার একেবারেই খাবেন না। মোট কথা, যে সব খাবারে টকজল বা স্যুপের আকারে পানি সরাসরি পেটে যায়, তাদের এড়িয়ে চলুন। এমনিতেও পানি ছাড়া রান্না হয় না। তাই অপরিষ্কার হোটেল বা রেস্তরাঁ থেকে খাবেন না। এড়াতে হবে স্ট্রিট ফুডও।



সর্বশেষ সংবাদ

সর্বশেষ এ্যালবাম

সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ।
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]